ধামরাইয়ে রাসায়নিক কারখানায় আগুন, ৫ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে

 প্রকাশ: ১৩ নভেম্বর ২০২২, ১২:৩৩ পূর্বাহ্ন   |   জনদুর্ভোগ

ধামরাইয়ে রাসায়নিক কারখানায় আগুন, ৫ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে

মোঃ শামীম আহমেদ (আশুলিয়া ঢাকা) :


ঢাকার ধামরাইয়ে বিসিক শিল্পনগরীর ভেতরে একটি কীট নাশক উৎপাদনকারী রাসায়নিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে ফায়ার সার্ভিসের ৯টি ইউনিটের প্রায় ৫ ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এ ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও পুরো ভবনে ফাটল ধরেছে। তাৎক্ষণিক ভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি।


শনিবার ভোররাত ৩ টা ১৬ মিনিটে ধামরাইয়ের সোমভাগ ইউনিয়নের বিসিক শিল্পনগরী এলাকায় বাংলাদেশ এগ্রিকালচার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড নামের কারখানায় এই অগ্নি কাণ্ডের ঘটনা ঘটে।


ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানিয়েছেন সরেজমিন ঘুরে এই কারখানায় বিভিন্ন ধরনের রাসায়নিক ব্যাবহার করে কীটনাশক তৈরি ও প্যাকেটজাত করার আলামত পাওয়া গেছে।


ধামরাই ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার সোহেল রানা জানান, ভোর রাতে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ধামরাই ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণের কাজ শুরু করে। আগুনের তীব্রতা বেশি হওয়ায় সাভার ফায়ার সার্ভিস, ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিস ও কল্যাণপুর ফায়ার সার্ভিসকেও খবর দেওয়া হয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের ৯টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। সাড়ে ৮টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে বিস্ফোরক দ্রব্যের গন্ধ, ধোঁয়া ও অতিরিক্ত গরমের কারণে এখন যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। ভবনের তৃতীয় ও চতুর্থ তলা স্বাভাবিক হতে আরও দুই ঘণ্টা সময় লাগবে।


প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দেড় বছর যাবত বাংলাদেশ এগ্রিকালচার ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেড কীটনাশক উৎপাদন করে সারাদেশে বাজারজাত করে আসছিল। আজ হটাৎ করেই ভোররাত ৩ টা ১৬ মিনিটে আব্দুল মান্নানের মালিকানাধীন ভবনের দ্বিতীয় তলায় আগুন লাগে। পরে কয়েকজন মিলে স্থানীয়দের সহায়তায় সেই আগুন নিভিয়ে ফেলে এবং কারখানার কিছু কেমিক্যাল বাইরে নিয়ে আসে। পরে তৃতীয় ও চতুর্থ তলায় আগুনের ভয়াবহতা বাড়তে থাকে। রাতে এই ভবনে কেউ থাকেন না। বিদ্যুতের সর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে তারা এসে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে।’


এ ব্যাপারে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (অপারেশন) নজমুজ্জামান বলেন, ‘৪টা ৪৫ মিনিটে আমরা আগুনের খবর পাই। খবর পেয়ে ধামরাই, সাভার ও ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট ঘটনাস্থলে আসে। তারা আসার পর দেখে আগুনের তীব্রতা অনেক বেশি। পরে কল্যাণপুর থেকে আমরাসহ মোট ৯টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করি। আমরা ৮টা ৪০ মিনিটের দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই। ভবনে আগুনের সূত্রপাত ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করতে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।


জনদুর্ভোগ এর আরও খবর: